বরিশাল ০৩:১৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
গৌরনদীতে ইউপি চেয়ারম্যানের ওপর হামলা ও বাইকে অগ্নিসংযোগ, ২০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেফতার ২ বরিশালে পুলিশ বক্সে হামলা অজ্ঞাত ৩০০ জনের নামে মামলা মাদারীপুরে কোটা সংস্কার আন্দোলকারীদের সঙ্গে পুলিশ-ছাত্রলীগের ত্রিমুখী সংঘর্ষে নিহত ১ আক্রমণ না করার শর্তে ববি ক্যাম্পাস ছেড়েছে পুলিশ-বিজিবি উজিরপুরে কোটা বিরোধী আন্দোলনে হামলার প্রতিবাদে সাধারণ শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল ভোলায় কোটা আন্দোলনের নামে ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভা বাবা মুক্তিযোদ্ধা না তবু ও কোটায় চাকরি তিন ছেলের যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান’র মৃত্যুবার্ষিকীতে গৌরনদীতে দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত ভোলায় হাসপাতালে লাশ রেখে পালালেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন, স্বজনদের দাবি হত্যা নলছিটিতে চাচাকে হত্যা চেষ্টা মামলায় ভাতিজা গ্রেপ্তার

বরিশালে ঠান্ডাজনিত রোগে ১৮ দিনে ১০ শিশুর মৃত্যু

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:৩৯:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২৪ ২৫৯ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা চলমান থাকায় বরিশাল বিভাগে ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে চলতি মাসের ১৮ দিনে ১০ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে শ্বাসতন্ত্রের প্রদাহজনিত রোগে তিনজন মারা গেছে। বাকি সাত শিশু ঠান্ডাজনিত বিভিন্ন রোগে ভুগে মারা গেছে। বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারী) বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তথ্য মতে, বরিশাল শের ই বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালে চলতি মাসে ঠান্ডাজনিত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে সাত শিশু। এ সময়ের মধ্যে শেবাচিমে চিকিৎসা নিয়েছে সাড়ে পাঁচ হাজার রোগী।

একই সময়ে শ্বাসতন্ত্রের প্রদাহজনিত রোগে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে শনিবার ভোলা হাসপাতালে নিউমোনিয়ায় তিন মাস বয়সী এক নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে। একই রোগে ঝালকাঠির আরও এক নবজাতক মারা গেছে। এছাড়া আরও একজন মারা গেছেন ঠান্ডাজনিত রোগে।

এদিকে শেবাচিম হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে ৪৫ শয্যার বিপরীতে প্রতিদিন সেবা নিচ্ছে ৮ থেকে ৯ গুণ রোগী। এতে করে ওয়ার্ডের মেঝে ও চলাচলের পথে বিছানায় চিকিৎসা দিতে হচ্ছে শিশুদের। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে রোগীর স্বজনরা। হঠাৎ করে রোগীর চাপ বৃদ্ধি পাওয়ায় সেবা দিতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছে চিকিৎসক, নার্সসহ সংশ্লিষ্টরা।

শেবাচিম হাসপাতালের সহকারী পরিচালক মনিরুজ্জামান শাহিন বলেন, শিশু ওয়ার্ডে শয্যা কমসহ নানান সীমাবদ্ধতার মধ্যেও আমরা কৌশল অবলম্বন করে সর্বোচ্চ সেবা দিয়ে যাচ্ছি। ঠান্ডাজনিত যেকোন রোগের ক্ষেত্রে দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে।

বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক শ্যামল কৃষ্ণ মন্ডল বলেন, অসহনীয় শীতের কারণে ঠান্ডাজনিত রোগী বেড়েছে। কারণ শীতকালে মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়। রোগী বৃদ্ধির পিছনে এটিও একটি কারণ হতে পারে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

বরিশালে ঠান্ডাজনিত রোগে ১৮ দিনে ১০ শিশুর মৃত্যু

আপডেট সময় : ০৪:৩৯:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা চলমান থাকায় বরিশাল বিভাগে ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে চলতি মাসের ১৮ দিনে ১০ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে শ্বাসতন্ত্রের প্রদাহজনিত রোগে তিনজন মারা গেছে। বাকি সাত শিশু ঠান্ডাজনিত বিভিন্ন রোগে ভুগে মারা গেছে। বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারী) বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তথ্য মতে, বরিশাল শের ই বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালে চলতি মাসে ঠান্ডাজনিত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে সাত শিশু। এ সময়ের মধ্যে শেবাচিমে চিকিৎসা নিয়েছে সাড়ে পাঁচ হাজার রোগী।

একই সময়ে শ্বাসতন্ত্রের প্রদাহজনিত রোগে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে শনিবার ভোলা হাসপাতালে নিউমোনিয়ায় তিন মাস বয়সী এক নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে। একই রোগে ঝালকাঠির আরও এক নবজাতক মারা গেছে। এছাড়া আরও একজন মারা গেছেন ঠান্ডাজনিত রোগে।

এদিকে শেবাচিম হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে ৪৫ শয্যার বিপরীতে প্রতিদিন সেবা নিচ্ছে ৮ থেকে ৯ গুণ রোগী। এতে করে ওয়ার্ডের মেঝে ও চলাচলের পথে বিছানায় চিকিৎসা দিতে হচ্ছে শিশুদের। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে রোগীর স্বজনরা। হঠাৎ করে রোগীর চাপ বৃদ্ধি পাওয়ায় সেবা দিতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছে চিকিৎসক, নার্সসহ সংশ্লিষ্টরা।

শেবাচিম হাসপাতালের সহকারী পরিচালক মনিরুজ্জামান শাহিন বলেন, শিশু ওয়ার্ডে শয্যা কমসহ নানান সীমাবদ্ধতার মধ্যেও আমরা কৌশল অবলম্বন করে সর্বোচ্চ সেবা দিয়ে যাচ্ছি। ঠান্ডাজনিত যেকোন রোগের ক্ষেত্রে দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে।

বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক শ্যামল কৃষ্ণ মন্ডল বলেন, অসহনীয় শীতের কারণে ঠান্ডাজনিত রোগী বেড়েছে। কারণ শীতকালে মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়। রোগী বৃদ্ধির পিছনে এটিও একটি কারণ হতে পারে।