বরিশাল ১২:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বাবা মুক্তিযোদ্ধা না তবু ও কোটায় চাকরি তিন ছেলের যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান’র মৃত্যুবার্ষিকীতে গৌরনদীতে দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত ভোলায় হাসপাতালে লাশ রেখে পালালেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন, স্বজনদের দাবি হত্যা নলছিটিতে চাচাকে হত্যা চেষ্টা মামলায় ভাতিজা গ্রেপ্তার বিয়ের দাবিতে ছাত্রদল নেতার বাড়িতে তরুণীর অনশন মাদারীপুরে দুগ্ধপোষ্য ২ সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে মানসিক ভারসাম্যহীন মা গৌরনদীতে পূর্ব শত্রুতার একজনকে খুপিয়ে জখম আমতলীতে গুপ্তধন দেয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নিলো কবিরাজ ভোলায় ১১৫ পিস ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী আটক বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুই চিকিৎসকের মধ্যে হাতাহাতি

মঠবাড়িয়ায় ছাত্রলীগ নেতাকে রাতভর নির্যাতনের অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৪১:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২৪ ৩১৬ বার পড়া হয়েছে

মোঃ বেল্লাল জোমাদ্দার, মঠবাড়িয়া— পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তুষার আহমেদ মিলনকে আসামি ছিনতাই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে রাতভর নির্যাতন চালানোর অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। গত ১০ জানুয়ারি ২ মাস ২ দিন পর জেল থেকে মুক্তি পেয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে নির্যাতনের এ বিষয়ে কথা বলেন তিনি।

পুলিশের নির্যাতনের শিকার ছাত্র লীগের এই নেতা জানান,গত বছরের ৮ নভেম্বর ছাত্রলীগ নেতা সোহেলকে পৌরসভা চত্ত্বর থেকে পুলিশ গ্রেফতারের চেষ্টা চালায়। খবর পেয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তাকে অনুরোধ করে ওই ছাত্র লীগ নেতাকে গ্রেফতার থেকে রক্ষা করেন।যদিও ছাত্রলীগ নেতা সোহেল ওয়ারেন্টভুক্ত কোন আসামি ছিল না।কিন্তু এটিকে পূঁজি করে রাত ১২টার দিকে আসামি ছিনতাই মামলা ও অস্ত্র মামলার নামে ছাত্র লীগ নেতাকর্মীদের নির্বিচারে গ্রেফতার করে পুলিশ।

তিনি আরও জানান,মঠবাড়িয়া থানার ওই সময়ের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার আমাকে বাসা থেকে কথা আছে বলে ডেকে নিয়ে আসেন।আমার অসুস্থ মায়ের কাছ থেকে ডেকে এনে মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।এরপর নির্যাতনের জন্য আমাকে ডিবি পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।ডিবি পুলিশ রাতভর আমাকে নির্যাতন করে। পরদিন থানায় হস্তান্তর করার পর থানা পুলিশ আমাকে কোর্টে প্রেরন করে।

ছাত্র লীগের এই নেতা আরও জানান,আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর অন্যান্য সংস্থা আসামি গ্রেফতারের পর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। আর থানা পুলিশ আমাকে গ্রেফতারের পর ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে।এটা কোন নিয়ম?কত টাকার বিনিময়ে এবং কাকে খুশি করার জন্য এহেন জঘন্য কাজ করা হয়েছে?ওসি কামরুজ্জামান তালুকদারকে মঠবাড়িয়া থানা থেকে প্রত্যাহার করে নেওয়ার জন্য পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানান তুষার আহমেদ মিলন। তদন্ত সাপেক্ষে বিতর্কিত এ মামলা থেকে অব্যহতি পেতে চান তিনি।এজন্য তিনি নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য সহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সুদৃষ্টি কামনা করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

মঠবাড়িয়ায় ছাত্রলীগ নেতাকে রাতভর নির্যাতনের অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে

আপডেট সময় : ১২:৪১:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২৪

মোঃ বেল্লাল জোমাদ্দার, মঠবাড়িয়া— পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তুষার আহমেদ মিলনকে আসামি ছিনতাই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে রাতভর নির্যাতন চালানোর অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। গত ১০ জানুয়ারি ২ মাস ২ দিন পর জেল থেকে মুক্তি পেয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে নির্যাতনের এ বিষয়ে কথা বলেন তিনি।

পুলিশের নির্যাতনের শিকার ছাত্র লীগের এই নেতা জানান,গত বছরের ৮ নভেম্বর ছাত্রলীগ নেতা সোহেলকে পৌরসভা চত্ত্বর থেকে পুলিশ গ্রেফতারের চেষ্টা চালায়। খবর পেয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তাকে অনুরোধ করে ওই ছাত্র লীগ নেতাকে গ্রেফতার থেকে রক্ষা করেন।যদিও ছাত্রলীগ নেতা সোহেল ওয়ারেন্টভুক্ত কোন আসামি ছিল না।কিন্তু এটিকে পূঁজি করে রাত ১২টার দিকে আসামি ছিনতাই মামলা ও অস্ত্র মামলার নামে ছাত্র লীগ নেতাকর্মীদের নির্বিচারে গ্রেফতার করে পুলিশ।

তিনি আরও জানান,মঠবাড়িয়া থানার ওই সময়ের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার আমাকে বাসা থেকে কথা আছে বলে ডেকে নিয়ে আসেন।আমার অসুস্থ মায়ের কাছ থেকে ডেকে এনে মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।এরপর নির্যাতনের জন্য আমাকে ডিবি পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।ডিবি পুলিশ রাতভর আমাকে নির্যাতন করে। পরদিন থানায় হস্তান্তর করার পর থানা পুলিশ আমাকে কোর্টে প্রেরন করে।

ছাত্র লীগের এই নেতা আরও জানান,আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর অন্যান্য সংস্থা আসামি গ্রেফতারের পর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। আর থানা পুলিশ আমাকে গ্রেফতারের পর ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে।এটা কোন নিয়ম?কত টাকার বিনিময়ে এবং কাকে খুশি করার জন্য এহেন জঘন্য কাজ করা হয়েছে?ওসি কামরুজ্জামান তালুকদারকে মঠবাড়িয়া থানা থেকে প্রত্যাহার করে নেওয়ার জন্য পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানান তুষার আহমেদ মিলন। তদন্ত সাপেক্ষে বিতর্কিত এ মামলা থেকে অব্যহতি পেতে চান তিনি।এজন্য তিনি নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য সহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সুদৃষ্টি কামনা করেন।