বরিশাল ০৯:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
উজিরপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১ আহত ৩ মির্জাগঞ্জে প্রাণীসম্পদ প্রদর্শনী মেলার উদ্বোধন মঠবাড়িয়ায় প্রধান শিক্ষকের অনৈতিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন গৌরনদী উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী হারিছুর রহমানের সমর্থনে বার্থীতে কর্মী সমাবেশ কারাগারের ভিতরে নারী কয়েদির সঙ্গে কারারক্ষীর অনৈতিক সম্পর্ক, অতঃপর… পটুয়াখালীতে গুনী সাংবাদিক নিয়াজ মোর্শেদ সেলিম আর নেই উজিরপুরে মাদক মামলার সংবাদ প্রকাশ করায় জামিনে এসে সাংবাদিকের ওপর হামলা উজিরপুরে শুরু হলো আড়াইশো বছরের ঐতিহ্যবাহী কাটাগাছ তলার বৈশাখী মেলা জুনের মধ্যে অর্থনৈতিক অবস্থা স্বাভাবিক হবে- এমপি মেনন রাজাপুরে বৈশাখী আনন্দে ঘুড়ি উৎসব অনুষ্ঠিত

মঠবাড়িয়ায় ছাত্রলীগ নেতাকে রাতভর নির্যাতনের অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৪১:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২৪ ৩০৩ বার পড়া হয়েছে

মোঃ বেল্লাল জোমাদ্দার, মঠবাড়িয়া— পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তুষার আহমেদ মিলনকে আসামি ছিনতাই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে রাতভর নির্যাতন চালানোর অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। গত ১০ জানুয়ারি ২ মাস ২ দিন পর জেল থেকে মুক্তি পেয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে নির্যাতনের এ বিষয়ে কথা বলেন তিনি।

পুলিশের নির্যাতনের শিকার ছাত্র লীগের এই নেতা জানান,গত বছরের ৮ নভেম্বর ছাত্রলীগ নেতা সোহেলকে পৌরসভা চত্ত্বর থেকে পুলিশ গ্রেফতারের চেষ্টা চালায়। খবর পেয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তাকে অনুরোধ করে ওই ছাত্র লীগ নেতাকে গ্রেফতার থেকে রক্ষা করেন।যদিও ছাত্রলীগ নেতা সোহেল ওয়ারেন্টভুক্ত কোন আসামি ছিল না।কিন্তু এটিকে পূঁজি করে রাত ১২টার দিকে আসামি ছিনতাই মামলা ও অস্ত্র মামলার নামে ছাত্র লীগ নেতাকর্মীদের নির্বিচারে গ্রেফতার করে পুলিশ।

তিনি আরও জানান,মঠবাড়িয়া থানার ওই সময়ের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার আমাকে বাসা থেকে কথা আছে বলে ডেকে নিয়ে আসেন।আমার অসুস্থ মায়ের কাছ থেকে ডেকে এনে মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।এরপর নির্যাতনের জন্য আমাকে ডিবি পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।ডিবি পুলিশ রাতভর আমাকে নির্যাতন করে। পরদিন থানায় হস্তান্তর করার পর থানা পুলিশ আমাকে কোর্টে প্রেরন করে।

ছাত্র লীগের এই নেতা আরও জানান,আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর অন্যান্য সংস্থা আসামি গ্রেফতারের পর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। আর থানা পুলিশ আমাকে গ্রেফতারের পর ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে।এটা কোন নিয়ম?কত টাকার বিনিময়ে এবং কাকে খুশি করার জন্য এহেন জঘন্য কাজ করা হয়েছে?ওসি কামরুজ্জামান তালুকদারকে মঠবাড়িয়া থানা থেকে প্রত্যাহার করে নেওয়ার জন্য পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানান তুষার আহমেদ মিলন। তদন্ত সাপেক্ষে বিতর্কিত এ মামলা থেকে অব্যহতি পেতে চান তিনি।এজন্য তিনি নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য সহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সুদৃষ্টি কামনা করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

মঠবাড়িয়ায় ছাত্রলীগ নেতাকে রাতভর নির্যাতনের অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে

আপডেট সময় : ১২:৪১:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২৪

মোঃ বেল্লাল জোমাদ্দার, মঠবাড়িয়া— পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তুষার আহমেদ মিলনকে আসামি ছিনতাই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে রাতভর নির্যাতন চালানোর অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। গত ১০ জানুয়ারি ২ মাস ২ দিন পর জেল থেকে মুক্তি পেয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে নির্যাতনের এ বিষয়ে কথা বলেন তিনি।

পুলিশের নির্যাতনের শিকার ছাত্র লীগের এই নেতা জানান,গত বছরের ৮ নভেম্বর ছাত্রলীগ নেতা সোহেলকে পৌরসভা চত্ত্বর থেকে পুলিশ গ্রেফতারের চেষ্টা চালায়। খবর পেয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তাকে অনুরোধ করে ওই ছাত্র লীগ নেতাকে গ্রেফতার থেকে রক্ষা করেন।যদিও ছাত্রলীগ নেতা সোহেল ওয়ারেন্টভুক্ত কোন আসামি ছিল না।কিন্তু এটিকে পূঁজি করে রাত ১২টার দিকে আসামি ছিনতাই মামলা ও অস্ত্র মামলার নামে ছাত্র লীগ নেতাকর্মীদের নির্বিচারে গ্রেফতার করে পুলিশ।

তিনি আরও জানান,মঠবাড়িয়া থানার ওই সময়ের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার আমাকে বাসা থেকে কথা আছে বলে ডেকে নিয়ে আসেন।আমার অসুস্থ মায়ের কাছ থেকে ডেকে এনে মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।এরপর নির্যাতনের জন্য আমাকে ডিবি পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।ডিবি পুলিশ রাতভর আমাকে নির্যাতন করে। পরদিন থানায় হস্তান্তর করার পর থানা পুলিশ আমাকে কোর্টে প্রেরন করে।

ছাত্র লীগের এই নেতা আরও জানান,আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর অন্যান্য সংস্থা আসামি গ্রেফতারের পর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। আর থানা পুলিশ আমাকে গ্রেফতারের পর ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে।এটা কোন নিয়ম?কত টাকার বিনিময়ে এবং কাকে খুশি করার জন্য এহেন জঘন্য কাজ করা হয়েছে?ওসি কামরুজ্জামান তালুকদারকে মঠবাড়িয়া থানা থেকে প্রত্যাহার করে নেওয়ার জন্য পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানান তুষার আহমেদ মিলন। তদন্ত সাপেক্ষে বিতর্কিত এ মামলা থেকে অব্যহতি পেতে চান তিনি।এজন্য তিনি নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য সহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সুদৃষ্টি কামনা করেন।