বরিশাল ০৪:০৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

উজিরপুরে হত্যা চেষ্টা মামলার আসামিরা পারি জমাচ্ছে বিদেশে, নিরব পুলিশ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:১৬:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ৩৯ বার পড়া হয়েছে

উজিরপুর প্রতিনিধিঃ বরিশালের উজিরপুরের গুঠিয়ায় তাইজুল ইসলাম টিপু (৩০) নামের এক যুবককে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দিয়ে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছিল দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় মামলার ১ মাস অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত কোনো আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেনি থানা পুলিশ। আসামীরা প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে একের পর এক সৌদি কাতার সহ বিভিন্ন দেশে পাড়ি জমাচ্ছে। এ বিষয়ে আহতের মা মামলার বাদী তহমিনা বেগম, ফুফু রাশিদা বেগম, শ্বশুর তৈয়ব আলী হাওলাদার, চাচা শাহীন হাওলাদার ও আমির হোসেন হাওলাদার জানান গত ৯ ফেব্রুয়ারী মামলার ৬ নং আসামি মিদুল হাওলাদার কাতার গিয়েছে। অপরদিকে ১ নং আসামি রিফাত হাওলাদার মামলায় জামিন নিয়ে কাতার যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে। তারা আরো জানান আসামিদের আত্বীয় কবির মাওলানা সহ বিভিন্ন আত্বীয়রা আসামীদের জামিনে এনে আবারো হামলা চালানোর জন্য ভয়ভীতি ও হুমকি দেয়। হামলার ঘটনায় গত ২৭ জানুয়ারি আহতের মা তাহমিনা বেগম বাদী হয়ে উজিরপর মডেল থানায় ৬ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করলেও রহস্যজনক কারনে ১ মাস অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত কোনো আসামিদের গ্রেপ্তার করতে পারেনি থানা পুলিশ। মামলায় আসামিরা হলেন- রিফাত হোসেন (২৩), আনোয়ার হোসেন (৫০), রাজিব চৌকিদার (৩৪), জাহিদ মুন্সি (৩৫), রফিকুল ইসলাম (৪০), মৃদুল হাওলাদারসহ (২০) অজ্ঞাত আরও ৪-৫ জন। উল্লেখ্য গত ২৫ জানুয়ারি রাত ১০টায় উজিরপুর উপজেলার পূর্ব নারায়নপুর গ্রামের মৃত আলম হাওলাদারের ছেলে তাইজুল ইসলাম টিপুকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাথালীভাবে পিটিয়ে ও কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় তার সঙ্গে থাকা স্বর্ণের চেইনসহ ৮২ হাজার টাকার মালামাল লুট করে তারা। টিপুর ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে বানারীপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে, পরে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে পাঠানো হয়। অবস্থার আরও অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়। ভুক্তভোগী টিপুর র চাচা আমীর হোসেন হাওলাদার ও শাহীন হাওলাদার জানান, আসামিদের আত্মীয়-স্বজনরা প্রভাবশালী। ভুক্তভোগী টিপুর র ফুফু রাশিদা বেগম জানান, ২০২৩ সালের অক্টোবর মাসে একই বাড়ির কাতার প্রবাসীর স্ত্রী রাত ৩টার দিকে বাড়ি থেকে বের হন। তার পিছু নেন টিপু। এ সময় ওই প্রবাসীর স্ত্রীকে আপত্তিকর অবস্থায় পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে দেখতে পান। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হলে ওই প্রবাসীর স্ত্রী বাড়িতে এসে দেবর টিপুর বিরুদ্ধে উল্টো শ্লীলতাহানীর অভিযোগ দেয়। পরে সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য সালেক হাওলাদার ও বাড়ির অন্যান্য লোকজন নিয়ে বৈঠকে বসেন। বৈঠক থেকে টিপুকে তাৎক্ষনিক চরথাপ্পর দিয়ে এলাকা ছাড়ার নির্দেশ দেন এবং ওই প্রবাসীর স্ত্রীকেও খারাপ কাজ না করে সংশোধন হওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। ওই ঘটনার জেরে প্রবাসীর স্ত্রীর বাবা ও একই এলাকার আনোয়ার হোসেনসহ ৬ জন মিলে ঘটনার দুই মাস পরে গত ২৫ জানুয়ারি রাত ১০টায় পরিকল্পিতভাবে টিপুকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দেয়। উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাফর আহম্মেদ জানান, এ ঘটনায় থানায় গত ২৭ জানুয়ারি মামলা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কোনো আসামী গ্রেফতার করা যায়নী। তবে শুনেছি আসামীরা আদালতে হাজির হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

উজিরপুরে হত্যা চেষ্টা মামলার আসামিরা পারি জমাচ্ছে বিদেশে, নিরব পুলিশ

আপডেট সময় : ০৭:১৬:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

উজিরপুর প্রতিনিধিঃ বরিশালের উজিরপুরের গুঠিয়ায় তাইজুল ইসলাম টিপু (৩০) নামের এক যুবককে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দিয়ে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছিল দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় মামলার ১ মাস অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত কোনো আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেনি থানা পুলিশ। আসামীরা প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে একের পর এক সৌদি কাতার সহ বিভিন্ন দেশে পাড়ি জমাচ্ছে। এ বিষয়ে আহতের মা মামলার বাদী তহমিনা বেগম, ফুফু রাশিদা বেগম, শ্বশুর তৈয়ব আলী হাওলাদার, চাচা শাহীন হাওলাদার ও আমির হোসেন হাওলাদার জানান গত ৯ ফেব্রুয়ারী মামলার ৬ নং আসামি মিদুল হাওলাদার কাতার গিয়েছে। অপরদিকে ১ নং আসামি রিফাত হাওলাদার মামলায় জামিন নিয়ে কাতার যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে। তারা আরো জানান আসামিদের আত্বীয় কবির মাওলানা সহ বিভিন্ন আত্বীয়রা আসামীদের জামিনে এনে আবারো হামলা চালানোর জন্য ভয়ভীতি ও হুমকি দেয়। হামলার ঘটনায় গত ২৭ জানুয়ারি আহতের মা তাহমিনা বেগম বাদী হয়ে উজিরপর মডেল থানায় ৬ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করলেও রহস্যজনক কারনে ১ মাস অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত কোনো আসামিদের গ্রেপ্তার করতে পারেনি থানা পুলিশ। মামলায় আসামিরা হলেন- রিফাত হোসেন (২৩), আনোয়ার হোসেন (৫০), রাজিব চৌকিদার (৩৪), জাহিদ মুন্সি (৩৫), রফিকুল ইসলাম (৪০), মৃদুল হাওলাদারসহ (২০) অজ্ঞাত আরও ৪-৫ জন। উল্লেখ্য গত ২৫ জানুয়ারি রাত ১০টায় উজিরপুর উপজেলার পূর্ব নারায়নপুর গ্রামের মৃত আলম হাওলাদারের ছেলে তাইজুল ইসলাম টিপুকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাথালীভাবে পিটিয়ে ও কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় তার সঙ্গে থাকা স্বর্ণের চেইনসহ ৮২ হাজার টাকার মালামাল লুট করে তারা। টিপুর ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে বানারীপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে, পরে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে পাঠানো হয়। অবস্থার আরও অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়। ভুক্তভোগী টিপুর র চাচা আমীর হোসেন হাওলাদার ও শাহীন হাওলাদার জানান, আসামিদের আত্মীয়-স্বজনরা প্রভাবশালী। ভুক্তভোগী টিপুর র ফুফু রাশিদা বেগম জানান, ২০২৩ সালের অক্টোবর মাসে একই বাড়ির কাতার প্রবাসীর স্ত্রী রাত ৩টার দিকে বাড়ি থেকে বের হন। তার পিছু নেন টিপু। এ সময় ওই প্রবাসীর স্ত্রীকে আপত্তিকর অবস্থায় পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে দেখতে পান। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হলে ওই প্রবাসীর স্ত্রী বাড়িতে এসে দেবর টিপুর বিরুদ্ধে উল্টো শ্লীলতাহানীর অভিযোগ দেয়। পরে সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য সালেক হাওলাদার ও বাড়ির অন্যান্য লোকজন নিয়ে বৈঠকে বসেন। বৈঠক থেকে টিপুকে তাৎক্ষনিক চরথাপ্পর দিয়ে এলাকা ছাড়ার নির্দেশ দেন এবং ওই প্রবাসীর স্ত্রীকেও খারাপ কাজ না করে সংশোধন হওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। ওই ঘটনার জেরে প্রবাসীর স্ত্রীর বাবা ও একই এলাকার আনোয়ার হোসেনসহ ৬ জন মিলে ঘটনার দুই মাস পরে গত ২৫ জানুয়ারি রাত ১০টায় পরিকল্পিতভাবে টিপুকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দেয়। উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাফর আহম্মেদ জানান, এ ঘটনায় থানায় গত ২৭ জানুয়ারি মামলা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কোনো আসামী গ্রেফতার করা যায়নী। তবে শুনেছি আসামীরা আদালতে হাজির হয়েছে।