বরিশাল ০৯:০০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
উজিরপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১ আহত ৩ মির্জাগঞ্জে প্রাণীসম্পদ প্রদর্শনী মেলার উদ্বোধন মঠবাড়িয়ায় প্রধান শিক্ষকের অনৈতিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন গৌরনদী উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী হারিছুর রহমানের সমর্থনে বার্থীতে কর্মী সমাবেশ কারাগারের ভিতরে নারী কয়েদির সঙ্গে কারারক্ষীর অনৈতিক সম্পর্ক, অতঃপর… পটুয়াখালীতে গুনী সাংবাদিক নিয়াজ মোর্শেদ সেলিম আর নেই উজিরপুরে মাদক মামলার সংবাদ প্রকাশ করায় জামিনে এসে সাংবাদিকের ওপর হামলা উজিরপুরে শুরু হলো আড়াইশো বছরের ঐতিহ্যবাহী কাটাগাছ তলার বৈশাখী মেলা জুনের মধ্যে অর্থনৈতিক অবস্থা স্বাভাবিক হবে- এমপি মেনন রাজাপুরে বৈশাখী আনন্দে ঘুড়ি উৎসব অনুষ্ঠিত

ভান্ডারিয়ায় জরাজীর্ণ ভবনে ঝুঁকি নিয়ে পাঠদান

মইনুল হোসেন
  • আপডেট সময় : ০৬:২৬:৩০ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ মার্চ ২০২৪ ১৩৬ বার পড়া হয়েছে

ভান্ডারিয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধি: পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার উত্তর ভিটাবাড়ীয়া আজাহারিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসায় ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে শিক্ষাকার্যক্রম ও পাঠদান। ভবনের জরাজীর্ণ দশায় যে কোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। এতে শিক্ষার্থীরা যেমন আছে আতঙ্কে তেমনি শিক্ষক ও অভিভাবকরাও রয়েছেন দুন্ডিন্তায়। একাধিকবার সংশ্লিষ্ট বিভাগে লিখিত অভিযোগ করেও কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় ঝুঁকির মধ্যেই মূলভবনে পরিচালিত হচ্ছে পাঠদান কার্যক্রম।

সরেজমিনে উত্তর ভিটাবাড়ীয়া আজাহারিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসায় গিয়ে দেখা যায়, ভবনটি একদিকে হেলে পড়েছে। ভবনটিকে রক্ষার জন্য বাঁশ ও গাছ দিয়ে ঠেকানো হয়েছে। মাদ্রসার ভবনটি ২ বছর আগে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা হয়। পুরাতন এ ভবনের প্রতিটি শ্রেণিকক্ষের বেহাল দশা। ভবনের কোথাও বড় ফাটল ধরে বেড়িয়ে এসেছে রড, আবার কোথাও খসে পড়ছে পলেস্তা। শিক্ষকরা ভয় ও আতঙ্কে নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই পাঠদান দিয়ে আসছে শিক্ষার্থীদের।

উত্তর ভিটাবাড়ীয়া আজাহারিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রসার দশম শেণির শিক্ষার্থী মরিয়াম আক্তার ইভা বলে, ক্লাস করার সময়ে আমাদের মাথার ওপরে ছঅদের পলেস্তা খসে পড়ে। এতে ভয় আর আতঙ্ক নিয়ে আমরা ক্লাস করছি। মাদ্রাসার নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী মিল্লিতি আক্তার বলে, আমাদের মাদ্রাসার এক কক্ষে দুটি শ্রেণির পাঠদান করানো হয়। এতে আমাদের পড়াশোনায় অনেক সমস্যা হয়। পাশের ভবনটা অনেক ঝুঁকিপূর্ণ।

উত্তর ভিটাবাড়ীয়া আজাহারিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রসার সুপার একে এম আলাউদ্দিন বলেন, শ্রেণিকক্ষের পাশাপাশি আমাদের অফিস কক্ষের অবস্থাও জরাজীর্ণ। তাই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কার্যক্রম চালাচ্ছে শিক্ষকরা। নতুন ভবন নির্মাণ করা হলে আমাদের পাঠদানে আরও গতি বাড়বে। শ্রেণিকক্ষ সংকট থাকায় আমাদের কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীর সংখ্যাও কমে যাচ্ছে। সংশ্লিষ্ট বিভাগে একাধিকবার লিখিত অভিযোগ করেও কোনো সমাধান পাইনি।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, ওই মাদ্রাসার এ অবস্থার কথা আমার জানা নেই। মাদ্রাসাটি পরিদর্শন করে উর্ধ্বতন মহলকে অবহিত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ভান্ডারিয়ায় জরাজীর্ণ ভবনে ঝুঁকি নিয়ে পাঠদান

আপডেট সময় : ০৬:২৬:৩০ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ মার্চ ২০২৪

ভান্ডারিয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধি: পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার উত্তর ভিটাবাড়ীয়া আজাহারিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসায় ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে শিক্ষাকার্যক্রম ও পাঠদান। ভবনের জরাজীর্ণ দশায় যে কোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। এতে শিক্ষার্থীরা যেমন আছে আতঙ্কে তেমনি শিক্ষক ও অভিভাবকরাও রয়েছেন দুন্ডিন্তায়। একাধিকবার সংশ্লিষ্ট বিভাগে লিখিত অভিযোগ করেও কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় ঝুঁকির মধ্যেই মূলভবনে পরিচালিত হচ্ছে পাঠদান কার্যক্রম।

সরেজমিনে উত্তর ভিটাবাড়ীয়া আজাহারিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসায় গিয়ে দেখা যায়, ভবনটি একদিকে হেলে পড়েছে। ভবনটিকে রক্ষার জন্য বাঁশ ও গাছ দিয়ে ঠেকানো হয়েছে। মাদ্রসার ভবনটি ২ বছর আগে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা হয়। পুরাতন এ ভবনের প্রতিটি শ্রেণিকক্ষের বেহাল দশা। ভবনের কোথাও বড় ফাটল ধরে বেড়িয়ে এসেছে রড, আবার কোথাও খসে পড়ছে পলেস্তা। শিক্ষকরা ভয় ও আতঙ্কে নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই পাঠদান দিয়ে আসছে শিক্ষার্থীদের।

উত্তর ভিটাবাড়ীয়া আজাহারিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রসার দশম শেণির শিক্ষার্থী মরিয়াম আক্তার ইভা বলে, ক্লাস করার সময়ে আমাদের মাথার ওপরে ছঅদের পলেস্তা খসে পড়ে। এতে ভয় আর আতঙ্ক নিয়ে আমরা ক্লাস করছি। মাদ্রাসার নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী মিল্লিতি আক্তার বলে, আমাদের মাদ্রাসার এক কক্ষে দুটি শ্রেণির পাঠদান করানো হয়। এতে আমাদের পড়াশোনায় অনেক সমস্যা হয়। পাশের ভবনটা অনেক ঝুঁকিপূর্ণ।

উত্তর ভিটাবাড়ীয়া আজাহারিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রসার সুপার একে এম আলাউদ্দিন বলেন, শ্রেণিকক্ষের পাশাপাশি আমাদের অফিস কক্ষের অবস্থাও জরাজীর্ণ। তাই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কার্যক্রম চালাচ্ছে শিক্ষকরা। নতুন ভবন নির্মাণ করা হলে আমাদের পাঠদানে আরও গতি বাড়বে। শ্রেণিকক্ষ সংকট থাকায় আমাদের কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীর সংখ্যাও কমে যাচ্ছে। সংশ্লিষ্ট বিভাগে একাধিকবার লিখিত অভিযোগ করেও কোনো সমাধান পাইনি।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, ওই মাদ্রাসার এ অবস্থার কথা আমার জানা নেই। মাদ্রাসাটি পরিদর্শন করে উর্ধ্বতন মহলকে অবহিত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।