বরিশাল ১২:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বাবা মুক্তিযোদ্ধা না তবু ও কোটায় চাকরি তিন ছেলের যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান’র মৃত্যুবার্ষিকীতে গৌরনদীতে দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত ভোলায় হাসপাতালে লাশ রেখে পালালেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন, স্বজনদের দাবি হত্যা নলছিটিতে চাচাকে হত্যা চেষ্টা মামলায় ভাতিজা গ্রেপ্তার বিয়ের দাবিতে ছাত্রদল নেতার বাড়িতে তরুণীর অনশন মাদারীপুরে দুগ্ধপোষ্য ২ সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে মানসিক ভারসাম্যহীন মা গৌরনদীতে পূর্ব শত্রুতার একজনকে খুপিয়ে জখম আমতলীতে গুপ্তধন দেয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নিলো কবিরাজ ভোলায় ১১৫ পিস ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী আটক বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুই চিকিৎসকের মধ্যে হাতাহাতি

ন্যাশনাল ভলান্টিয়ার এওয়ার্ড পেলেন বেতাগী’র খাইরুল ইসলাম মুন্না

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:১৯:৩৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০২৪ ৭৯ বার পড়া হয়েছে

বেতাগী (বরগুনা) প্রতিনিধি— স্বেচ্ছাসেবায় অনন্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বরগুনা জোলর ইয়ুথ ফোরাম এর সমাজ কল্যান বিষয়ক সম্পাদক ও গ্রিন পিস সোসাইটি কর্যনির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ খাইরুল ইসলাম মুন্না বরিশাল বিভাগীয় পর্যায় পেলেন ভিএসও ন্যাশনাল ভলান্টিয়ার এওয়ার্ড ২০২৩। তিনি বেতাগী উপজেলা হোসনাবাদ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের মোঃ সিদ্দিকুর রহমান ও খাদিজা আক্তার বেবি ২ ছেলে সন্তান এর মধ্যে বড় সন্তান, ২০০৬ সালের পহেলা সেপ্টেম্বর তার নিজ গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ২০১৫ সালে পিএসসি ২০১৮ সালে জেএসসি, ২০২০ সালে এসএসসি,২০২২ সালে এইচএসসি পরীক্ষায় সফলতার সাথে উত্তীর্ণ হন। তিনি, যুব রেড ক্রিসেন্ট জেলা পর্যায়ে ২০২৩ সালের সেরা স্বেচ্ছাসেবক পুরুস্কার’পেয়েছেন, ২০২০ সালে মহামারী করোনা ভাইরাসে বিশেষ অবধান রাখায় উপজেলা পর্যায় বিশেষ সন্মান পান, জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০২৩ এ জেলা পর্যায় শ্রেষ্ঠ রোভার স্কাউট হিসাবে পুরস্কার পান, ২০২২ সালে শিশু সংগঠন ন্যাশলনা চিল্ড্রেন টাস্ক ফোর্স (এনসিটিএফ) বরগুনা জেলার শ্রেষ্ঠ সভাপতি হিসাবে নির্বাচিত হন, ২০২০সালে আন্তর্জাতিক কন্যা শিশু দিবস উপলক্ষে বেসরকারি সংস্থা প্লান ইন্টারন্যাশনাল ও সিবিডিপি এবং এনসিটিএফ থেকে বিশেষ সন্মান পান, ২০২২ ও ২০২৩ সালে উপজেলা পর্যায়ের শ্রেষ্ঠ শ্রেষ্ঠ বিতর্কিক নির্বাচিত হন। খাইরুল ইসলাম মুন্না ,২০১৭ সালে বেতাগী সরকারি পাইলট উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় স্কাউট দলের মাধ্যমে স্বেচ্ছাসেবক হিসাবে যাত্রা শুরু করেন পরবর্তীতে তিনি ২০২০ সালে জাতীয় পর্যায় শিশু সংগঠন এনসিটিএফ এর সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন ও ২০২৩-২৪ সালে একই সংগঠন এর সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ বরগুনা জেলার সাধারণ সম্পাদক , যুব রেড ক্রিসেন্ট বেতাগী উপজেলা বিভাগীয় প্রধান প্রশাসন, সংগঠন ও সদস্য সংগ্রহ বিভাগ, সততা সংগ বেতাগী সরকারি কলেজ এর সভাপতি, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক অদম্য বাংলাদেশ বরগুনা জেলা, সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক বিএসও বরগুনা জেলা,যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বেতাগী সাইন্স সোসাইটি, সিনিয়র রোভার মেট বেতাগী সরকারি কলেজ, প্রতিষ্ঠাতা গ্রিন পিস সোসাইটি, সভাপতি ওয়ার্ল্ড চিলড্রেন ফোরাম বরগুনা জেলা,সাংগঠনিক সম্পাদক ধ্রুবতারা ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন বেতাগী উপজেলা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ ওয়ার্কিং ক্লাব বরগুনা জেলা। মানুষের স্বপ্ন বড় বিচিত্র। কেউ স্বপ্ন দেখে বিলাসী জীবনের আর কেউ স্বপ্ন দেখে, মানবতার সেবায় নিজেকে আত্মনিয়োগ করে কাটিয়ে দেবে সারাজীবন সেরকমেরই একজন মুন্না। সে বলেন,আজকের দিনটি আমার কাছে অত্যন্ত আনন্দের। আমি আমার এই প্রাপ্তি বাবা-মা ও আমার জেলা, উপজেলা সকল সেচ্ছাসেবেকের প্রতি উৎসর্গ করছি। আমার স্মৃতিপটে আজীবন স্মরণীয় হয়ে থাকবে। বিশ্বের সকল স্বেচ্ছাসেবকদের প্রতি রইল শ্রদ্ধা ও অকৃত্রিম ভালবাসা । বাংলাদেশের পথে প্রান্তরে যে সকল স্বেচ্ছাসেবকরা একটি সুন্দর সমাজ ও দেশ এবং দেশের মানুষের জন্য যে অবদান রাখছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। এগিয়ে যাক প্রতিটা মানুষ মানবতার কল্যানে, স্বেচ্ছাসেবার কাজের পরিধির ব্যপ্তি হোক, ধরায় নেমে আসুক মহানুভবতার ছায়া জয় হোক প্রতিটা স্বেচ্চাসেবকের।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ন্যাশনাল ভলান্টিয়ার এওয়ার্ড পেলেন বেতাগী’র খাইরুল ইসলাম মুন্না

আপডেট সময় : ০৪:১৯:৩৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০২৪

বেতাগী (বরগুনা) প্রতিনিধি— স্বেচ্ছাসেবায় অনন্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বরগুনা জোলর ইয়ুথ ফোরাম এর সমাজ কল্যান বিষয়ক সম্পাদক ও গ্রিন পিস সোসাইটি কর্যনির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ খাইরুল ইসলাম মুন্না বরিশাল বিভাগীয় পর্যায় পেলেন ভিএসও ন্যাশনাল ভলান্টিয়ার এওয়ার্ড ২০২৩। তিনি বেতাগী উপজেলা হোসনাবাদ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের মোঃ সিদ্দিকুর রহমান ও খাদিজা আক্তার বেবি ২ ছেলে সন্তান এর মধ্যে বড় সন্তান, ২০০৬ সালের পহেলা সেপ্টেম্বর তার নিজ গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ২০১৫ সালে পিএসসি ২০১৮ সালে জেএসসি, ২০২০ সালে এসএসসি,২০২২ সালে এইচএসসি পরীক্ষায় সফলতার সাথে উত্তীর্ণ হন। তিনি, যুব রেড ক্রিসেন্ট জেলা পর্যায়ে ২০২৩ সালের সেরা স্বেচ্ছাসেবক পুরুস্কার’পেয়েছেন, ২০২০ সালে মহামারী করোনা ভাইরাসে বিশেষ অবধান রাখায় উপজেলা পর্যায় বিশেষ সন্মান পান, জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০২৩ এ জেলা পর্যায় শ্রেষ্ঠ রোভার স্কাউট হিসাবে পুরস্কার পান, ২০২২ সালে শিশু সংগঠন ন্যাশলনা চিল্ড্রেন টাস্ক ফোর্স (এনসিটিএফ) বরগুনা জেলার শ্রেষ্ঠ সভাপতি হিসাবে নির্বাচিত হন, ২০২০সালে আন্তর্জাতিক কন্যা শিশু দিবস উপলক্ষে বেসরকারি সংস্থা প্লান ইন্টারন্যাশনাল ও সিবিডিপি এবং এনসিটিএফ থেকে বিশেষ সন্মান পান, ২০২২ ও ২০২৩ সালে উপজেলা পর্যায়ের শ্রেষ্ঠ শ্রেষ্ঠ বিতর্কিক নির্বাচিত হন। খাইরুল ইসলাম মুন্না ,২০১৭ সালে বেতাগী সরকারি পাইলট উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় স্কাউট দলের মাধ্যমে স্বেচ্ছাসেবক হিসাবে যাত্রা শুরু করেন পরবর্তীতে তিনি ২০২০ সালে জাতীয় পর্যায় শিশু সংগঠন এনসিটিএফ এর সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন ও ২০২৩-২৪ সালে একই সংগঠন এর সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ বরগুনা জেলার সাধারণ সম্পাদক , যুব রেড ক্রিসেন্ট বেতাগী উপজেলা বিভাগীয় প্রধান প্রশাসন, সংগঠন ও সদস্য সংগ্রহ বিভাগ, সততা সংগ বেতাগী সরকারি কলেজ এর সভাপতি, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক অদম্য বাংলাদেশ বরগুনা জেলা, সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক বিএসও বরগুনা জেলা,যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বেতাগী সাইন্স সোসাইটি, সিনিয়র রোভার মেট বেতাগী সরকারি কলেজ, প্রতিষ্ঠাতা গ্রিন পিস সোসাইটি, সভাপতি ওয়ার্ল্ড চিলড্রেন ফোরাম বরগুনা জেলা,সাংগঠনিক সম্পাদক ধ্রুবতারা ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন বেতাগী উপজেলা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ ওয়ার্কিং ক্লাব বরগুনা জেলা। মানুষের স্বপ্ন বড় বিচিত্র। কেউ স্বপ্ন দেখে বিলাসী জীবনের আর কেউ স্বপ্ন দেখে, মানবতার সেবায় নিজেকে আত্মনিয়োগ করে কাটিয়ে দেবে সারাজীবন সেরকমেরই একজন মুন্না। সে বলেন,আজকের দিনটি আমার কাছে অত্যন্ত আনন্দের। আমি আমার এই প্রাপ্তি বাবা-মা ও আমার জেলা, উপজেলা সকল সেচ্ছাসেবেকের প্রতি উৎসর্গ করছি। আমার স্মৃতিপটে আজীবন স্মরণীয় হয়ে থাকবে। বিশ্বের সকল স্বেচ্ছাসেবকদের প্রতি রইল শ্রদ্ধা ও অকৃত্রিম ভালবাসা । বাংলাদেশের পথে প্রান্তরে যে সকল স্বেচ্ছাসেবকরা একটি সুন্দর সমাজ ও দেশ এবং দেশের মানুষের জন্য যে অবদান রাখছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। এগিয়ে যাক প্রতিটা মানুষ মানবতার কল্যানে, স্বেচ্ছাসেবার কাজের পরিধির ব্যপ্তি হোক, ধরায় নেমে আসুক মহানুভবতার ছায়া জয় হোক প্রতিটা স্বেচ্চাসেবকের।