বরিশাল ০৫:০৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

পটুয়াখালীতে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে সংর্ঘষে নারী সহ আহত ৫

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:০১:২১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০২৪ ১৫৩ বার পড়া হয়েছে

পটুয়াখালী প্রতিনিধি : পটুয়াখালী জেলার মাদারবুনিায় ইউনিয়নের পশ্চিম হেতালিয়া গ্রামে জমি-জমা নিয়ে বিরোধ জেরে উভয় পক্ষের সংঘর্ষে ৫ জন আহতের খবর পাওয়া গেছে। আহতদের চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন সৈয়দ আলী একমানদারে ছেলে গোলাম মস্তফা (৩৪) ও হাবিবুর রহমান (৩৯) পুত্রবধূ শিউলি বেগম (৩২) এবং অপরপক্ষের আ: রহমান একমানদার (৬৫) ও তার ছেলে জাহাঙ্গীর (৩২)। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় একই বংশের সৈয়দ আলী একমানদারে চাচাতো ভাইয়ে ছেলে আ: রহমান একমানদারে জমি-জমা ভাগাভাগি নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলছিল।বিরোধ পূর্ণ জমি-জমা নিয়ে এলাকায় একাধিকবার সালিশ মীমাংসও হয়েছে। বর্তমানে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে বলেও জানা যায়।

আহত হাবিবুর রহমান একমানদার জানান শুক্রবার জুমার নাম‍াজ আদায়ের লক্ষে আমার বাবা সৈয়দ আলী একমানদার ও মেজো ভাই গোলাম মস্তফা সহ একত্রে মসজিদে রওনা দেই। যাওয়ার পথে আ: রহমান একমানদার (৬০) ও তার লোকজন নিয়ে আমাদের যাওয়ার পথে বাধা দেয়। তখন আমার বাবার সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে পিছন থেকে আ: রহমান একমানদারের ছেলে আমাকে আঘাত করে। আমরা নিজের রক্ষার জন্য দৌড়ে আমাদের ঘরের মধ্যে ঢুকে যাই। তার পর তারা আমাদের ঘরে ঢুকে মারধর করে এবং ঘর ভাংচুর করে।

এদিকে অপর পক্ষের আহত আ: রহমান একমানদার প্রতিপক্ষের উদেশ্য বলেন তারা আদালতে জমি পাবে না। এটা তারা সিওর। তাই ক্ষিপ্ত হয়ে এই কাজ করেছে। আমরাও যে এককালে ভাল লোক তা’না। আমাদেরও ভাই, বোন, ছেলে-পেলে একত্রে হলে তাদের এক’শ লোকেও কিছু হয় না। আমরা আদালত করছি। সেখানে আমরা মারমারি করবো কেন।

এবিষয়ে পটুয়াখালী সদর থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: জসিম উদ্দিন’র কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন একপক্ষের মামলা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

পটুয়াখালীতে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে সংর্ঘষে নারী সহ আহত ৫

আপডেট সময় : ০৪:০১:২১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০২৪

পটুয়াখালী প্রতিনিধি : পটুয়াখালী জেলার মাদারবুনিায় ইউনিয়নের পশ্চিম হেতালিয়া গ্রামে জমি-জমা নিয়ে বিরোধ জেরে উভয় পক্ষের সংঘর্ষে ৫ জন আহতের খবর পাওয়া গেছে। আহতদের চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন সৈয়দ আলী একমানদারে ছেলে গোলাম মস্তফা (৩৪) ও হাবিবুর রহমান (৩৯) পুত্রবধূ শিউলি বেগম (৩২) এবং অপরপক্ষের আ: রহমান একমানদার (৬৫) ও তার ছেলে জাহাঙ্গীর (৩২)। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় একই বংশের সৈয়দ আলী একমানদারে চাচাতো ভাইয়ে ছেলে আ: রহমান একমানদারে জমি-জমা ভাগাভাগি নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলছিল।বিরোধ পূর্ণ জমি-জমা নিয়ে এলাকায় একাধিকবার সালিশ মীমাংসও হয়েছে। বর্তমানে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে বলেও জানা যায়।

আহত হাবিবুর রহমান একমানদার জানান শুক্রবার জুমার নাম‍াজ আদায়ের লক্ষে আমার বাবা সৈয়দ আলী একমানদার ও মেজো ভাই গোলাম মস্তফা সহ একত্রে মসজিদে রওনা দেই। যাওয়ার পথে আ: রহমান একমানদার (৬০) ও তার লোকজন নিয়ে আমাদের যাওয়ার পথে বাধা দেয়। তখন আমার বাবার সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে পিছন থেকে আ: রহমান একমানদারের ছেলে আমাকে আঘাত করে। আমরা নিজের রক্ষার জন্য দৌড়ে আমাদের ঘরের মধ্যে ঢুকে যাই। তার পর তারা আমাদের ঘরে ঢুকে মারধর করে এবং ঘর ভাংচুর করে।

এদিকে অপর পক্ষের আহত আ: রহমান একমানদার প্রতিপক্ষের উদেশ্য বলেন তারা আদালতে জমি পাবে না। এটা তারা সিওর। তাই ক্ষিপ্ত হয়ে এই কাজ করেছে। আমরাও যে এককালে ভাল লোক তা’না। আমাদেরও ভাই, বোন, ছেলে-পেলে একত্রে হলে তাদের এক’শ লোকেও কিছু হয় না। আমরা আদালত করছি। সেখানে আমরা মারমারি করবো কেন।

এবিষয়ে পটুয়াখালী সদর থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: জসিম উদ্দিন’র কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন একপক্ষের মামলা হয়েছে।