বরিশাল ১২:০৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বাবা মুক্তিযোদ্ধা না তবু ও কোটায় চাকরি তিন ছেলের যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান’র মৃত্যুবার্ষিকীতে গৌরনদীতে দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত ভোলায় হাসপাতালে লাশ রেখে পালালেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন, স্বজনদের দাবি হত্যা নলছিটিতে চাচাকে হত্যা চেষ্টা মামলায় ভাতিজা গ্রেপ্তার বিয়ের দাবিতে ছাত্রদল নেতার বাড়িতে তরুণীর অনশন মাদারীপুরে দুগ্ধপোষ্য ২ সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে মানসিক ভারসাম্যহীন মা গৌরনদীতে পূর্ব শত্রুতার একজনকে খুপিয়ে জখম আমতলীতে গুপ্তধন দেয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নিলো কবিরাজ ভোলায় ১১৫ পিস ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী আটক বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুই চিকিৎসকের মধ্যে হাতাহাতি

পটুয়াখালীতে স্ত্রীর হাতে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কর্তন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৩১:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০২৪ ৪৬ বার পড়া হয়েছে

পটুয়াখালী প্রতিনিধি : পটুয়াখালীর দশমিনায় পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীর হাতে স্বামী পুরুষাঙ্গ কেটে আলাদা করার খবর পাওয়া গেছে।

শুক্রবার (২২শে মার্চ) দিবাগত মধ্যরাতে স্বামী সোহেল খাঁ (৩৫) এর পুরুষাঙ্গ কেটে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন (৪০) কে আটক করেছে পুলিশ।উপজেলার সদর ইউনিয়নের পূজাখলা এলাকায় ওই দম্পতির ভাড়া বাসায় এঘটনা ঘটে। স্বামী সোহেল খাঁ সদর ইউনিয়নের ০৩ নং ওয়ার্ডের কাউনিয়া গ্রামের মোঃ বেল্লাল ভান্ডারীর বড় ছেলে এবং স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন একই গ্রামের বাসিন্দা মৃত ছত্তার কাজির মেয়ে।

পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, প্রায় ২০ বছর আগে পারিবারিকভাবে সোহেল ও সাবিনা ইয়াসমিনের বিবাহ হয়। স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে দীর্ঘদিন নানা কারনে অকারনে কলহ বিদ্যমান ছিলো। তারই জের ধরে ওইদিন মধ্যরাতে সোহেল নিদ্রায় থাকা অবস্থায় স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন ধারালো ছুরি দিয়ে তাহার পুরুষাঙ্গ কেটে দেয়। পরে সোহেলের ডাকচিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে দেখে সোহেল রক্তাক্ত অবস্থায় পরে রয়েছে।

পরবর্তীতে সোহেলের প্রতিবেশীরা দশমিনা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বরিশাল হাসপাতালে নেয়া হলে সেখান থেকে তাকে ঢাকা পাঠিয়ে দেওয়া হয়। বর্তমানে আশংকাজনক আবস্থায় ঢাকা নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়ান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে।

সোহেলের বাবা বেল্লাল ভান্ডারী জানান, “ঘটনার বিষয়ে কিছু জানিনা। রাতে সোহেলের খবর শুনে হাসপাতালে এসে বিষয়টি দেখি। ছেলের অবস্থা আশংকাজনক তাই দশমিনা হাসপাতাল থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ঢাকায় রেফার করেন। বর্তমানে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।”

দশমিনা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাঃ মিঠুন জানান, “সোহেলকে নিয়ে আসলে দেখা যায় তার পুরুষাঙ্গের এক তৃতীয়াংশ কাটা এবং ডান রানে পোচের জখম। ২২—২৫ টি শেলাই করা হয়েছে। সোহেলের অবস্থা আশংকাজনক। তাই উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল হাসপাতালে পাঠানোর পরামর্শ দেয়া হয়েছে।”

দশমিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম মজুমদার বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হযেছে এবং ঘটনাস্থল থেকে স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিনকে আটক করা হয়েছে। এদিকে সোহেলের পুরুষাঙ্গ কাটায় ব্যবহৃত একটি ধারালো ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে। আর স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে এবং আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

পটুয়াখালীতে স্ত্রীর হাতে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কর্তন

আপডেট সময় : ১১:৩১:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০২৪

পটুয়াখালী প্রতিনিধি : পটুয়াখালীর দশমিনায় পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীর হাতে স্বামী পুরুষাঙ্গ কেটে আলাদা করার খবর পাওয়া গেছে।

শুক্রবার (২২শে মার্চ) দিবাগত মধ্যরাতে স্বামী সোহেল খাঁ (৩৫) এর পুরুষাঙ্গ কেটে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন (৪০) কে আটক করেছে পুলিশ।উপজেলার সদর ইউনিয়নের পূজাখলা এলাকায় ওই দম্পতির ভাড়া বাসায় এঘটনা ঘটে। স্বামী সোহেল খাঁ সদর ইউনিয়নের ০৩ নং ওয়ার্ডের কাউনিয়া গ্রামের মোঃ বেল্লাল ভান্ডারীর বড় ছেলে এবং স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন একই গ্রামের বাসিন্দা মৃত ছত্তার কাজির মেয়ে।

পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, প্রায় ২০ বছর আগে পারিবারিকভাবে সোহেল ও সাবিনা ইয়াসমিনের বিবাহ হয়। স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে দীর্ঘদিন নানা কারনে অকারনে কলহ বিদ্যমান ছিলো। তারই জের ধরে ওইদিন মধ্যরাতে সোহেল নিদ্রায় থাকা অবস্থায় স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন ধারালো ছুরি দিয়ে তাহার পুরুষাঙ্গ কেটে দেয়। পরে সোহেলের ডাকচিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে দেখে সোহেল রক্তাক্ত অবস্থায় পরে রয়েছে।

পরবর্তীতে সোহেলের প্রতিবেশীরা দশমিনা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বরিশাল হাসপাতালে নেয়া হলে সেখান থেকে তাকে ঢাকা পাঠিয়ে দেওয়া হয়। বর্তমানে আশংকাজনক আবস্থায় ঢাকা নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়ান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে।

সোহেলের বাবা বেল্লাল ভান্ডারী জানান, “ঘটনার বিষয়ে কিছু জানিনা। রাতে সোহেলের খবর শুনে হাসপাতালে এসে বিষয়টি দেখি। ছেলের অবস্থা আশংকাজনক তাই দশমিনা হাসপাতাল থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ঢাকায় রেফার করেন। বর্তমানে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।”

দশমিনা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাঃ মিঠুন জানান, “সোহেলকে নিয়ে আসলে দেখা যায় তার পুরুষাঙ্গের এক তৃতীয়াংশ কাটা এবং ডান রানে পোচের জখম। ২২—২৫ টি শেলাই করা হয়েছে। সোহেলের অবস্থা আশংকাজনক। তাই উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল হাসপাতালে পাঠানোর পরামর্শ দেয়া হয়েছে।”

দশমিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম মজুমদার বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হযেছে এবং ঘটনাস্থল থেকে স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিনকে আটক করা হয়েছে। এদিকে সোহেলের পুরুষাঙ্গ কাটায় ব্যবহৃত একটি ধারালো ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে। আর স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে এবং আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে।