বরিশাল ০৫:১২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

উজিরপুরে ভুয়া ডিএসবি পুলিশ সেজে প্রতারণার অভিযোগ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৫২:০২ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ এপ্রিল ২০২৪ ২৮ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ বরিশাল জেলার উজিরপুরে বিদেশগামীদের পাসপোর্ট ও অন্যান্য কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করার জন্য ডিএসবি পুলিশ কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে প্রতারণার অভিযোগ পাওয়া গেছে । মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) সন্ধ্যায় উজিরপুর মডেল থানার সামনে ঘটনাটি যানাযানি হলে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয় ও একাধিক অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, পুরো উপজেলা জুরে ভুয়া ডিএসবি পুলিশ কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে নানা ভাবে মানুষকে তদন্তের নামে হয়রানী করে আসছে। উপজেলার বড়াকোঠা ইউনিয়নের গড়িয়া নতুনহাট গ্রামের রুস্তম আলীর পুত্র মোঃ রফিকুল ইসলাম (২৫) গত ২৯ মার্চ বরিশাল পাসপোর্ট অফিসে পাসপোর্টের জন্য আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে ২ এপ্রিল মঙ্গলবার সকালে পাসপোর্ট আবেদনকারীকে উজিরপুরের ডিএসবি কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে পাসপোর্ট ভেরিফাই করতে জন্ম নিবন্ধন, এনআইডি কার্ড, পাসপোর্টের আবেদন কপি, প্রত্যায়ন পত্র, সার্টিফিকেট সহ নানা প্রমানপত্র ডিএসবি কর্মকর্তা পরিচয় দানকারীর ০১৭৬৬৭২৮৮১৭ নম্বরে হোয়াটসঅ্যাপে পাঠিয়ে দিতে বলে। আবেদনকারীর হোয়াটসঅ্যাপ না থাকায় সে দিতে ব্যার্থ হন। তখন তাকে সন্ধায় থানার সামনে আসতে বলে ভুয়া ডিএসবি কর্মকর্তা। সন্ধায় থানার সামনের চা দোকানে আবেদনকারী রবিউল ৫ ঘন্টা অপেক্ষা করলেও সেই ডিএসবি কর্মকর্তা আসেননি। এমনকি তার ফোনে একাধিক বার ফোন করার পরে রিসিভ করে বলেন আজ একটু ঝামেলায় আছি পরে তদন্ত করবো। বিষয়টি সন্দেহজনক মনে হলে রবিউল কর্মকর্তার নাম জিঙ্গেসা করলে সে বলেন আমার নাম জেনে কি করবি? নাম জানার দরকার নাই। পাসপোর্ট ভেরিফাই হলেই হল। রবিউল প্রতারকের খপ্পরে পড়েছেন বুঝতে পেরে থানার সামনে থাকা লোকজনের সাথে বিষয়টি আলোচনা করে। ডিএসবি কর্মকর্তা পরিচয় দানকারী ব্যাক্তির পরিচয় সনাক্ত করতে উজিরপুর থানার ডিএসবি কর্মকর্তা এস আই মোঃ হানিফ কে ফোন করা হলে তিনি বলেন, ভেরিফাই এর জন্য ফোন করা এই ০১৭৬৬৭২৮৮১৭ নম্বর ব্যবহার করা কোনো ডিএসবি কর্মকর্তা বা সদস্য উজিরপুর উপজেলায় কর্মরত নেই। বিষয়টি আমার উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করবো। ভুয়া ডিএসবি কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে প্রতারণার বিষয়ে উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাফর আহমেদ বলেন, ঘটনাটি শুনেছি অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

উজিরপুরে ভুয়া ডিএসবি পুলিশ সেজে প্রতারণার অভিযোগ

আপডেট সময় : ১০:৫২:০২ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ এপ্রিল ২০২৪

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ বরিশাল জেলার উজিরপুরে বিদেশগামীদের পাসপোর্ট ও অন্যান্য কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করার জন্য ডিএসবি পুলিশ কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে প্রতারণার অভিযোগ পাওয়া গেছে । মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) সন্ধ্যায় উজিরপুর মডেল থানার সামনে ঘটনাটি যানাযানি হলে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয় ও একাধিক অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, পুরো উপজেলা জুরে ভুয়া ডিএসবি পুলিশ কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে নানা ভাবে মানুষকে তদন্তের নামে হয়রানী করে আসছে। উপজেলার বড়াকোঠা ইউনিয়নের গড়িয়া নতুনহাট গ্রামের রুস্তম আলীর পুত্র মোঃ রফিকুল ইসলাম (২৫) গত ২৯ মার্চ বরিশাল পাসপোর্ট অফিসে পাসপোর্টের জন্য আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে ২ এপ্রিল মঙ্গলবার সকালে পাসপোর্ট আবেদনকারীকে উজিরপুরের ডিএসবি কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে পাসপোর্ট ভেরিফাই করতে জন্ম নিবন্ধন, এনআইডি কার্ড, পাসপোর্টের আবেদন কপি, প্রত্যায়ন পত্র, সার্টিফিকেট সহ নানা প্রমানপত্র ডিএসবি কর্মকর্তা পরিচয় দানকারীর ০১৭৬৬৭২৮৮১৭ নম্বরে হোয়াটসঅ্যাপে পাঠিয়ে দিতে বলে। আবেদনকারীর হোয়াটসঅ্যাপ না থাকায় সে দিতে ব্যার্থ হন। তখন তাকে সন্ধায় থানার সামনে আসতে বলে ভুয়া ডিএসবি কর্মকর্তা। সন্ধায় থানার সামনের চা দোকানে আবেদনকারী রবিউল ৫ ঘন্টা অপেক্ষা করলেও সেই ডিএসবি কর্মকর্তা আসেননি। এমনকি তার ফোনে একাধিক বার ফোন করার পরে রিসিভ করে বলেন আজ একটু ঝামেলায় আছি পরে তদন্ত করবো। বিষয়টি সন্দেহজনক মনে হলে রবিউল কর্মকর্তার নাম জিঙ্গেসা করলে সে বলেন আমার নাম জেনে কি করবি? নাম জানার দরকার নাই। পাসপোর্ট ভেরিফাই হলেই হল। রবিউল প্রতারকের খপ্পরে পড়েছেন বুঝতে পেরে থানার সামনে থাকা লোকজনের সাথে বিষয়টি আলোচনা করে। ডিএসবি কর্মকর্তা পরিচয় দানকারী ব্যাক্তির পরিচয় সনাক্ত করতে উজিরপুর থানার ডিএসবি কর্মকর্তা এস আই মোঃ হানিফ কে ফোন করা হলে তিনি বলেন, ভেরিফাই এর জন্য ফোন করা এই ০১৭৬৬৭২৮৮১৭ নম্বর ব্যবহার করা কোনো ডিএসবি কর্মকর্তা বা সদস্য উজিরপুর উপজেলায় কর্মরত নেই। বিষয়টি আমার উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করবো। ভুয়া ডিএসবি কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে প্রতারণার বিষয়ে উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাফর আহমেদ বলেন, ঘটনাটি শুনেছি অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।