বরিশাল ১১:২৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বাবা মুক্তিযোদ্ধা না তবু ও কোটায় চাকরি তিন ছেলের যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান’র মৃত্যুবার্ষিকীতে গৌরনদীতে দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত ভোলায় হাসপাতালে লাশ রেখে পালালেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন, স্বজনদের দাবি হত্যা নলছিটিতে চাচাকে হত্যা চেষ্টা মামলায় ভাতিজা গ্রেপ্তার বিয়ের দাবিতে ছাত্রদল নেতার বাড়িতে তরুণীর অনশন মাদারীপুরে দুগ্ধপোষ্য ২ সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে মানসিক ভারসাম্যহীন মা গৌরনদীতে পূর্ব শত্রুতার একজনকে খুপিয়ে জখম আমতলীতে গুপ্তধন দেয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নিলো কবিরাজ ভোলায় ১১৫ পিস ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী আটক বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুই চিকিৎসকের মধ্যে হাতাহাতি

পটুয়াখালীতে মাদ্রাসার ছাত্রের বলৎকারের অভিযোগ

বরিশাল সময় নিউজ রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ১০:০৬:০৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ জুলাই ২০২৪ ১৪ বার পড়া হয়েছে

পটুয়াখালী প্রতিনিধি : পটুয়াখালীতে প্রথম শ্রেণির এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগ উঠেছে মাহমুদুল হাসান নামে শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর শিশুর বাবা ওই শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়ে বুধবার (৩ জুলাই) দুপুরে পটুয়াখালী প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

অভিযুক্ত মাহমুদুল হাসান পৌর শহরের দারুল কুরআন মাদ্রাসার মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক। সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী শিশুর বাবা বলেন, গত ৯ জুন বেলা ১১টার সময় দারুল কুরআন মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মাহমুদুল হাসান প্রথম শ্রেণির শিশু শিক্ষার্থীকে মাদ্রাসার তৃতীয় তলার একান্ত রুমে ডেকে নিয়ে বলাৎকার করেন।

এসময় শিশুটি কান্নাকাটি করলে তাকে মারধর করেন শিক্ষক মাহমুদুল হাসান। মারধরে শিশুটি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পরলে তাকে কোনো চিকিৎসা না করে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন মাদ্রাসার পরিচালক এবং প্রধান শিক্ষক আহম্মদ কবির ও সহকারী শিক্ষক মাহমুদুল হাসান। এমনকি পরিবারকে কিছু না বলার জন্য শিশুটিকে হুমকি দেন।

গত ১২ জুন শিশুটি ঈদের ছুটিতে বাড়ি গেলে অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে শিশুটির মা জিজ্ঞেস করলে একপর্যায়ে তার সঙ্গে ঘটে যাওয়া পুরো বিষয়টি খুলে বলেন। পরে ১৫ জুন চিকিৎসার জন্য শিশুটিকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

বর্তমানে দারুল কুরআন মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মাহমুদুল হাসান মামলা হওয়ার পরই পলাতক রয়েছে।

এ বিষয়ে পটুয়াখালী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জসিম জানান, তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

পটুয়াখালীতে মাদ্রাসার ছাত্রের বলৎকারের অভিযোগ

আপডেট সময় : ১০:০৬:০৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ জুলাই ২০২৪

পটুয়াখালী প্রতিনিধি : পটুয়াখালীতে প্রথম শ্রেণির এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগ উঠেছে মাহমুদুল হাসান নামে শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর শিশুর বাবা ওই শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়ে বুধবার (৩ জুলাই) দুপুরে পটুয়াখালী প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

অভিযুক্ত মাহমুদুল হাসান পৌর শহরের দারুল কুরআন মাদ্রাসার মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক। সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী শিশুর বাবা বলেন, গত ৯ জুন বেলা ১১টার সময় দারুল কুরআন মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মাহমুদুল হাসান প্রথম শ্রেণির শিশু শিক্ষার্থীকে মাদ্রাসার তৃতীয় তলার একান্ত রুমে ডেকে নিয়ে বলাৎকার করেন।

এসময় শিশুটি কান্নাকাটি করলে তাকে মারধর করেন শিক্ষক মাহমুদুল হাসান। মারধরে শিশুটি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পরলে তাকে কোনো চিকিৎসা না করে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন মাদ্রাসার পরিচালক এবং প্রধান শিক্ষক আহম্মদ কবির ও সহকারী শিক্ষক মাহমুদুল হাসান। এমনকি পরিবারকে কিছু না বলার জন্য শিশুটিকে হুমকি দেন।

গত ১২ জুন শিশুটি ঈদের ছুটিতে বাড়ি গেলে অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে শিশুটির মা জিজ্ঞেস করলে একপর্যায়ে তার সঙ্গে ঘটে যাওয়া পুরো বিষয়টি খুলে বলেন। পরে ১৫ জুন চিকিৎসার জন্য শিশুটিকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

বর্তমানে দারুল কুরআন মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মাহমুদুল হাসান মামলা হওয়ার পরই পলাতক রয়েছে।

এ বিষয়ে পটুয়াখালী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জসিম জানান, তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।