বরিশাল ১২:৫০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বাবা মুক্তিযোদ্ধা না তবু ও কোটায় চাকরি তিন ছেলের যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান’র মৃত্যুবার্ষিকীতে গৌরনদীতে দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত ভোলায় হাসপাতালে লাশ রেখে পালালেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন, স্বজনদের দাবি হত্যা নলছিটিতে চাচাকে হত্যা চেষ্টা মামলায় ভাতিজা গ্রেপ্তার বিয়ের দাবিতে ছাত্রদল নেতার বাড়িতে তরুণীর অনশন মাদারীপুরে দুগ্ধপোষ্য ২ সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে মানসিক ভারসাম্যহীন মা গৌরনদীতে পূর্ব শত্রুতার একজনকে খুপিয়ে জখম আমতলীতে গুপ্তধন দেয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নিলো কবিরাজ ভোলায় ১১৫ পিস ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী আটক বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুই চিকিৎসকের মধ্যে হাতাহাতি

নলছিটিতে চাচাকে হত্যা চেষ্টা মামলায় ভাতিজা গ্রেপ্তার

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:২৪:২৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০২৪ ৬৬ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক— ঝালকাঠির নলছিটিতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে চাচাকে পিটিয়ে হত্যা করার চেষ্টা মামলায় জয় অধিকারী নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল (১০ জুলাই) তার নিজ বাড়ী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বিরুদ্ধে উপজেলার সুবিদপুর ইউনিয়নের সৈয়র এলাকার বাসিন্দা শান্ত অধিকারী একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ৭ জুলাই রবিবার সন্ধ্যায় স্থানীয় ভোজপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সম্মুখে পূর্ব থেকে ওত পেতে থাকা জয় অধিকারী তার দলবল নিয়ে কমল অধিকারীর উপর দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হামলা করে। এসময় কমল অধিকারীর ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। তারা পালিয়ে যাওয়ার সময় কমল অধিকারীর কাছে থাকা নগদ টাকা, স্বর্নের চেইন ও স্মার্টফোন ছিনিয়ে নেয়। পরে তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে নলছিটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিমে পাঠানো হয়।

এ ঘটনায় কমল অধিকারীর পুত্র শান্ত অধিকারী চার জনের নাম উল্লেখ করে নলছিটি থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন।

কমল অধিকারীর পুত্র শান্ত অধিকারী জানান, তাদের সাথে আমাদের জমিজমা নিয়ে ঝামেলা ছিল।পরবর্তীতে শালিস বৈঠকে স্থানীয়দের নিয়ে জমি মেপে আমরা আরও অনেক জমির দখল পেয়েছি যেগুলো তারা আগে জবরদখল করে রেখেছিল। এছাড়া আমার বাবার নামে তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আজেবাজে লিখেছিল সেটা নিয়ে আমার বাবা তাদের নামে একটি এজাহার দায়ের করেছেন। সবমিলিয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে তারা আমার বাবাকে মেরে ফেলার জন্যই হামলা করেছিল। স্থানীয়রা ছুটে আসায় আমার বাবা প্রানে বেঁচে গেছেন। বর্তমানে তিনি বরিশাল শেবাচিমে চিকিৎসাধীন আছেন।

গ্রেপ্তারকৃত জয় অধিকারী সুবিদপুর ইউনিয়নের সৈয়র নিবাসী সুনিল অধিকারীর পুত্র। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সাব্বির রহমান।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

নলছিটিতে চাচাকে হত্যা চেষ্টা মামলায় ভাতিজা গ্রেপ্তার

আপডেট সময় : ০৩:২৪:২৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক— ঝালকাঠির নলছিটিতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে চাচাকে পিটিয়ে হত্যা করার চেষ্টা মামলায় জয় অধিকারী নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল (১০ জুলাই) তার নিজ বাড়ী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বিরুদ্ধে উপজেলার সুবিদপুর ইউনিয়নের সৈয়র এলাকার বাসিন্দা শান্ত অধিকারী একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ৭ জুলাই রবিবার সন্ধ্যায় স্থানীয় ভোজপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সম্মুখে পূর্ব থেকে ওত পেতে থাকা জয় অধিকারী তার দলবল নিয়ে কমল অধিকারীর উপর দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হামলা করে। এসময় কমল অধিকারীর ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। তারা পালিয়ে যাওয়ার সময় কমল অধিকারীর কাছে থাকা নগদ টাকা, স্বর্নের চেইন ও স্মার্টফোন ছিনিয়ে নেয়। পরে তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে নলছিটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিমে পাঠানো হয়।

এ ঘটনায় কমল অধিকারীর পুত্র শান্ত অধিকারী চার জনের নাম উল্লেখ করে নলছিটি থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন।

কমল অধিকারীর পুত্র শান্ত অধিকারী জানান, তাদের সাথে আমাদের জমিজমা নিয়ে ঝামেলা ছিল।পরবর্তীতে শালিস বৈঠকে স্থানীয়দের নিয়ে জমি মেপে আমরা আরও অনেক জমির দখল পেয়েছি যেগুলো তারা আগে জবরদখল করে রেখেছিল। এছাড়া আমার বাবার নামে তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আজেবাজে লিখেছিল সেটা নিয়ে আমার বাবা তাদের নামে একটি এজাহার দায়ের করেছেন। সবমিলিয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে তারা আমার বাবাকে মেরে ফেলার জন্যই হামলা করেছিল। স্থানীয়রা ছুটে আসায় আমার বাবা প্রানে বেঁচে গেছেন। বর্তমানে তিনি বরিশাল শেবাচিমে চিকিৎসাধীন আছেন।

গ্রেপ্তারকৃত জয় অধিকারী সুবিদপুর ইউনিয়নের সৈয়র নিবাসী সুনিল অধিকারীর পুত্র। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সাব্বির রহমান।