বরিশাল ১২:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বাবা মুক্তিযোদ্ধা না তবু ও কোটায় চাকরি তিন ছেলের যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান’র মৃত্যুবার্ষিকীতে গৌরনদীতে দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত ভোলায় হাসপাতালে লাশ রেখে পালালেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন, স্বজনদের দাবি হত্যা নলছিটিতে চাচাকে হত্যা চেষ্টা মামলায় ভাতিজা গ্রেপ্তার বিয়ের দাবিতে ছাত্রদল নেতার বাড়িতে তরুণীর অনশন মাদারীপুরে দুগ্ধপোষ্য ২ সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে মানসিক ভারসাম্যহীন মা গৌরনদীতে পূর্ব শত্রুতার একজনকে খুপিয়ে জখম আমতলীতে গুপ্তধন দেয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নিলো কবিরাজ ভোলায় ১১৫ পিস ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী আটক বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুই চিকিৎসকের মধ্যে হাতাহাতি

ভোলায় হাসপাতালে লাশ রেখে পালালেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন, স্বজনদের দাবি হত্যা

বরিশাল সময় নিউজ রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০৩:৩০:৫৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০২৪ ১৭ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক— ভোলার রতনপুরে এক গৃহবধূর লাশ হাসপাতালে ফেলে পালিয়েছেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন। নিহতের স্বজনদের দাবি, পারিবারিক কলহের জেরে তাকে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার (১০ জুলাই) বিকেল ৪টার দিকে হাসপাতাল ওই গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত গৃহবধূর নাম সানজিদা সদর উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের রতনপুর গ্রামের রাজমিন্ত্রী সোবাহানের স্ত্রী।

পুলিশ জানায়, দুপুর পৌনে ৩টার দিকে অচেতন অবস্থায় গৃহবধূ সানজিদাকে ভোলার ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসেন এক নারীসহ কয়েকজন। নাম লেখা হয় আমেনা বেগম। জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণার করার পর মরদেহ ফেলে পালিয়ে যায় সঙ্গে আসা সবাই।

পরে হাসপাতাল থেকে থানায় খবর দেওয়া হলে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। তবে হাসপাতালে কোনো স্বজনকে না পেয়ে পুলিশ নিহত গৃহবধূর স্বামী সোবহানের বাড়িতে গিয়েও কাউকে পায়নি। পরে খবর পেয়ে নিহত সানজিদার স্বজনরা হাসপাতালে ছুটে আসেন।

ভোলা সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান পাটোয়ারী গণমাধ্যমকে জানান, হাসপাতালের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহের সুরতহাল রিপোর্ট করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। নিহতের শ্বশুরবাড়িতে গিয়েও কাউকে পাওয়া যায়নি। প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ভোলায় হাসপাতালে লাশ রেখে পালালেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন, স্বজনদের দাবি হত্যা

আপডেট সময় : ০৩:৩০:৫৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক— ভোলার রতনপুরে এক গৃহবধূর লাশ হাসপাতালে ফেলে পালিয়েছেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন। নিহতের স্বজনদের দাবি, পারিবারিক কলহের জেরে তাকে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার (১০ জুলাই) বিকেল ৪টার দিকে হাসপাতাল ওই গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত গৃহবধূর নাম সানজিদা সদর উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের রতনপুর গ্রামের রাজমিন্ত্রী সোবাহানের স্ত্রী।

পুলিশ জানায়, দুপুর পৌনে ৩টার দিকে অচেতন অবস্থায় গৃহবধূ সানজিদাকে ভোলার ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসেন এক নারীসহ কয়েকজন। নাম লেখা হয় আমেনা বেগম। জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণার করার পর মরদেহ ফেলে পালিয়ে যায় সঙ্গে আসা সবাই।

পরে হাসপাতাল থেকে থানায় খবর দেওয়া হলে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। তবে হাসপাতালে কোনো স্বজনকে না পেয়ে পুলিশ নিহত গৃহবধূর স্বামী সোবহানের বাড়িতে গিয়েও কাউকে পায়নি। পরে খবর পেয়ে নিহত সানজিদার স্বজনরা হাসপাতালে ছুটে আসেন।

ভোলা সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান পাটোয়ারী গণমাধ্যমকে জানান, হাসপাতালের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহের সুরতহাল রিপোর্ট করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। নিহতের শ্বশুরবাড়িতে গিয়েও কাউকে পাওয়া যায়নি। প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।